আজ শুক্রবার, ৩রা অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ১৯শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সানি লিওন ভেবে দিনরাত জ্বালাতন!

খবর২৪ঘণ্টা  ডেস্ক: বছর দুয়েক আগে শাকিব খান অভিনীত একটি সিনেমায় ইজাজুল মিয়া নামে সিএনজিচালকের মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করা নিয়ে হুলস্থুল পড়ে গিয়েছিল। হাজার হাজার শাকিব-ভক্তের ফোনকলে ত্যক্ত-বিরক্ত হয়ে উঠেছিলেন ইজাজুল। ঘটনা গড়িয়েছিল আদালত পর্যন্ত।

এবার সেই একই কাণ্ড ঘটেছে পাশের দেশ ভারতে। বলিউডের একটি সিনেমায় সানি লিওনের মুখে উচ্চারিত একটি ফোন নাম্বার মিলে গেছে পুনীত আগারওয়াল নামে এক ব্যক্তির ফোন নাম্বারের সঙ্গে। সিনেমা মুক্তির পর থেকেই প্রতিদিন শত শত মানুষ সানি ভেবে ফোন দিচ্ছেন ২৬ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির কাছে।

জানা যায়, গত ২৬ জুলাই মুক্তি পেয়েছে বলিউড সিনেমা ‘অর্জুন পাতিয়ালা’। এ সিনেমারই একটি সংলাপে ফোন নাম্বার দেন আলোচিত অভিনেত্রী সানি লিওন। আর, সেখান থেকেই বিপাকে পড়েছেন পুনীত।

তার কাছে সারাদিন একের পর এক সানি-ভক্তের ফোন আসতেই আছে। শুধু যে ভারত থেকেই ফোন আসছে না নয়, পাকিস্তান, দুবাই, ইতালি, অস্ট্রেলিয়া থেকেও পুনীতের কাছে ফোন এসেছে। তাদের বিশ্বাস, ওই নাম্বারটি সত্যি সত্যিই সানি লিওনের।

এ দুর্ভোগে নাওয়া-খাওয়া একপ্রকার হারাম হয়ে গেছে পুনীতের! ঠিকমতো ঘুমানোরও উপায় নেই। রাত ৩টা-৪টার সময়ও ফোন করে সানি লিওনকে খুঁজছে মানুষ।

তবে, এত জ্বালাতন সত্ত্বেও ফোন নাম্বার বন্ধ করে রাখা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছে ভুক্তভোগী পুনীত আগারওয়াল। কারণ, এ নাম্বারটি তার ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। অনেক বন্ধু-বান্ধবের কাছেই সেটি দেওয়া আছে।

পুনীত আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি’কে জানান, সিনেমা মুক্তির দিনই তার কাছে প্রথম ফোনকল আসে। ওই ব্যক্তি ফোন করে সানি লিওনের সঙ্গে কথা বলতে চাচ্ছিলেন। পুনীত রং নাম্বার বলার পরও তিনি কিছুতেই বিশ্বাস করছিলেন না। অগত্যা রাগ করে কল কেটে দেন পুনীত আগারওয়াল।

তিনি বলেন, প্রথম দু্ই-তিনটা বা ১০টা ফোনকল পর্যন্ত ভেবেছিলাম, কেউ আমার সঙ্গে মজা করছে। হতে পারে কোনো বন্ধু। কিন্তু, কল আসতেই থাকলো। সবারই একই প্রশ্ন, ‘সানি লিওনের সঙ্গে কথা বলতে পারি?’

বেশ কয়েকজন সিনেমার নাম বলায় ঘটনা বুঝতে পারেন পুনীত। পরে, তিনি নিজেই ‘অর্জুন পাতিয়ালা’ দেখতে যান ও ঘটনার সত্যতা পান।

এ নিয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ জানাতে গিয়েছিলেন পুনীত আগারওয়াল। কিন্তু, কলদাতারা কোনো অপরাধ করেননি বিধায় কিছু করার ছিল না পুলিশের। তারা তাকে আদালতে যেতে বলেন। পরে, সিনেমা থেকে নিজের ফোন নাম্বার সরিয়ে নিতে আদালতে পিটিশন দায়ের করেন পুনীত।

একের পর এক ফোনকলে বিপাকে পড়লেও সিনেমা সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে মামলা করতে চান না ভুক্তভোগী যুবক। তার একটাই দাবি, টেলিভিশন-অনলাইনে প্রচারের আগেই যেন সিনেমাটি থেকে তার ফোন নাম্বার মুছে ফেলা হয়।

পরীক্ষা না করেই অন্যের ফোন নাম্বার ব্যবহারের বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি ‘অজুন পাতিয়ালা’ সিনেমার পরিচালক রোহিত যুগরাজ চৌহান।

খবর২৪ঘণ্টা, জেএন


Download our Mobile Apps Today