1. [email protected] : Abir k24 : Abir k24
  2. [email protected] : bulbul ob : bulbul ob
  3. [email protected] : Ea Shihab : Ea Shihab
  4. [email protected] : khobor : khobor 24
  5. [email protected] : admin :
  6. [email protected] : omor faruk : omor faruk
  7. [email protected] : R khan : R khan
শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৩০ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং:

আপনার সামনে ঘটে যাওয়া গুরুত্বপূর্ণ তথ্য, আমাদের দিয়ে সহযোগিতা করুন। আমরা আপনাদের পরিচয় গোপন রাখব।

রাজশাহী কলেজ বাস থেকে খালেদার নাম মোছা নিয়ে ফেসবুকে ঝড়

  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮
ছবি ফেসবুক

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী কলেজের একটি বাস থেকে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার নাম মোছা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে।
সূত্র জানা গেছে, বেগম খালেদা জিয়া ১৯৯৩ সালে প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে রাজশাহী সরকারী কলেজকে একটি বাস উপহার দেন। ওই বাসটিতে লেখা ছিল রাজশাহী কলেজকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার উপহার-১৯৯৩।

সেই বাসটিতে থাকা খালেদা জিয়ার নাম মুছে দিয়ে রাহুল নামের এক যুবক লেখেন, বাংলাদেশ তথা রাজশাহী কলেজের কোন জায়গায় চোরের নাম থাকবেনা ও থাকতে পারেনা। আজ রাজশাহী কলেজ-ছাত্রছাত্রীদের বাস থেকে খালেদা চোর এর নাম মুছে ফেলেছেন রাজশাহী কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রিয় বড় ভাই নাইমুল ইসলাম নাইম ভাই।

এ পোস্ট দেওয়ার সাথে সাথেই ফেসবুকে সমালোচনার ঝড় বইতে শুরু করে। এমদাদুল হক লিমন নামের এক ফেসবুক ব্যবহারকারী লেখেন আরো নাম মুছাতে পারবা কিন্ত ক্ষোভ মিছানো সম্ভব নয়। এমন ঘৃণ্য কর্মকাণ্ডের নিন্দা জানাবোনা। আমরা এর জবাবও দেবো রেকর্ড করে রাখা থাকলো। সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নাম মুছানোর জন্য কি শাস্তি পাওয়া উচিত তা ছাত্র সমাজই নির্ধারণ করবে।

মু. জসিম সরকার নামের আরেক ফেসবুক ব্যবহারকারী লেখেন, টানা ৯ বছর ক্ষমতায় আছে। কি দিয়েছে এই কলেজকে? একটা নতুন বাস? হোস্টেল, বরং হোস্টেলটাকে চাঁদাবাজী আর মাদকের আঁখড়া বানিয়েছে। এই কলেজে যা কিছু সব ছাত্রদের সম্পত্তি। তাদের এইভাবে মুছে দেওয়ার অধিকার নেই। যারা এসব করে তাদের নৈতিক কোনো ভিত্তি নেই এইসব করে তাদের মনে রাখা উচিত যে প্রতিহিংসার আগুন তারা জ্বালাচ্ছে এই

আগুনন তাদেরই পুড়াবে।

 

এভাবে বেশ কয়েকজন সমালোচনা করে স্ট্যাটাস দেয়। এ নিয়ে কথা বলতে রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তিনি মোবাইল রিসিভ করেননি।

খবর ২৪ ঘণ্টা.কম/ জন

প্লিজ পোস্টটি শেয়ার করুন

এ ধরনের আরো খবর..

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পুর্ণ বেআইনি।

প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট