আজ মঙ্গলবার, ৩রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং, ১৯শে ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বাগমারায় স্বাস্থ্যসেবায় অবদান রাখায় মাদার তেরেসা স্বর্ণ পদক পেলেন ডা. বারী

khobor24ghonta.com

বাগমারা প্রতিনিধি: বাগমারার প্রত্যন্ত অঞ্চলের হত দরিদ্র প্রান্তিক মানুষের চিকিৎসা সেবায় অসমান্য অবদান রাখার স্বীকৃতি স্বরূপ মাদার তেরেসা স্বর্ণ পদক পুরষ্কার পেলেন বাগমারার কৃতি সন্তান বিশিষ্ট চিকিৎসক ও সমাজ সেবক ডা. আলহাজ আব্দুল বারী।

বাগমারার হামির কুৎসা ইউনিয়নের দক্ষিণ মাঝগ্রাম প্রত্যন্ত অঞ্চলের একটি মুসলিম পরিবারে ১৯৭০ সালে তাঁর জন্ম হয়। প্রয়াত পিতা মোহাম্মদ আলীর বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুই তাঁকে এই মহান পেশায় আসার অনুপ্রেরণা দিয়েছে। ১৯৯৫ সালে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ থেকে কৃতিত্বের সাথে এমবিবিএস সফলতার সাথে পাশ করার পর সে সরকারি চাকুরিতে না গিয়ে রাজশাহীর প্রত্যন্ত অঞ্চল বাগমারার হত দরিদ্র মানুষের চিকিৎসায় ব্রত হয়েছেন। তাঁর মহান পেশায় নিজেকে নিয়োজিত করেন যা অদ্যাবধি চলমান আছে। বাগমারা উপজেলা সদর ভবানীগঞ্জ পৌরসভার গোডাউন মোড়ে গড়ে তোলেন বেসরকারি চিকিৎসা সেবা কেন্দ্র ভবানীগঞ্জ ক্লিনিক। প্রতিদিন সেখানে স্বল্প খরচে নিরাপদ চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন বাগমারার হাজারো নারী পুরুষ। গরিব বয়ষ্ক রোগীদের বিনা অর্থে চিকিৎসা সেবা প্রদান করে চলেছেন বাগমারার অসহায় মানুষের বন্ধু ডা. আলহাজ আব্দুল বারী। তারই ফল স্বরূপ স্বাস্থ্য সেবায় অসামান্য অবদানের জন্য মাদার তেরেসা স্বর্ণ পদক পেলেন তিনি। তাঁর এই অসামান্য অবদানের পুরষ্কার পাওয়ায় বাগমারার সুধি মহলে ব্যপক প্রশংসিত হয়েছেন।

এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, তাঁর এই পুরষ্কার বাগমারার গরিব মানুষের পুরষ্কার জনসেবার মত মহান পেশায় নিজেকে আত্মনিয়োগ করতে পেরে তিনি মহান আল্লাহ্ পাকের দরবারে শুকরিয়া আদায় করেছেন। তিনি মৃত্যুর আগ মুহুর্ত পর্যন্ত জনসেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। উল্লেখ্য, চলতি মাসের ৯মার্চ বাংলাদেশ নারী কল্যাণ ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে তিনি মাদার তেরেসা স্বর্ণ পদক পেয়েছেন। ঢাকায় জহির রায়হান সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাঁর হাতে এই স্বর্ণ পদক তুলে দেয়া হয়।

খবর২৪ঘণ্টা.কম/নজ


Download our Mobile Apps Today