সবার আগে.সর্বশেষ  
ঢাকাশনিবার , ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বাগমারায় পুকুরের লীজ গ্রহিতার বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

R khan
ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৮ ৬:০৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

বাগমারা প্রতিনিধিঃ বাগমারায় পুকুর লীজের টাকা পরিশোধ না করেই লীজ দাতা রেজাউল হককে নানা ভাবে হয়রানী ও ভয়ভীতি দেখাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে লীজ গ্রহিতা মোবারক হোসেনের বিরুদ্ধে। ওই ঘটনায় লীজ দাতা রেজাউল হক বাদী হয়ে লীজ গ্রহিতা মোবারক হোসেনের বিরুদ্ধে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

থানার লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মাড়িয়া ইউনিয়নের সাঁকোয়া গ্রামের রেজাউল হক, গোয়ালকান্দি ইউনিয়নের চন্দ্রপুর গ্রামের আসারিয়া দহ মৎস্য জীবি সমবায় সমিতির নিকট থেকে তিনটি পুকুর ৮ লক্ষ টাকায় লীজ গ্রহন করেন। রেজাউল হকের বাড়ী পুকুর থেকে অনেক দুরে হওয়ায় তিনি ওই পুকুর গুলো গোয়ালকান্দি ইউনিয়নের উদপাড়া গ্রামের মোবারক হোসেনের নিকট ওই টাকা দিয়েই লীজ প্রদান করেন। ৮ লক্ষ টাকার মধ্যে ৪ লক্ষ টাকা রেজাউল হককে প্রদান করে মোবারক হোসেন পুকুর গুলো দখলে নেয়। বাঁকী ৪ লক্ষ টাকা দুই মাসের মধ্যে পরিশোধ করার কথা থাকলেও তিনি টাকা গুলো পরিশোধ করেন নাই। টাকা চাইতে গেলে বিভিন্ন টালবাহনা ছাড়াও মোবারক হোসেন লীজ দাতা রেজাউল হককে ভয়ভীতি ও হয়রানী করছেন। লীজ দাতা রেজাউল হক অভিযোগ করে বলেন, মোবারক হোসেন আমার টাকা না দিয়ে বিভিন্ন কৌশল অবলম্ব করছেন। সরকারী নিয়মানুসারে পুকুরের মেয়াদ শেষের দিকে। তিনি আমার টাকা গুলো আত্মসাত করবেন। যার কারনে তিনি বিভিন্ন ভাবে টালবাহনা শুরু করেছেন। তিনি অবিলম্বে লীজের টাকা পরিশোধের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বাগমারা থানার ওসি নাছিম আহম্মেদ অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

খবর২৪ঘণ্টা.কম/নজ 

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।